,
রবিবার, ২১ এপ্রিল ২০২৪, ০২:৩০ অপরাহ্ন

মহিলা আ.লীগ নেত্রীর বিরুদ্ধে জমি দখলের অভিযোগ

রিপোর্টারের নাম
  • আপডেটের সময় : বৃহস্পতিবার, ২৮ সেপ্টেম্বর, ২০২৩
  • ১৫২ Time View

আশিকুর রহমান, নরসিংদী: নরসিংদী জেলা মহিলা আওয়ামীগ লীগের সভাপতি ফাতেমা সরকার সুমির বিরুদ্ধে অবৈধভাবে জমি দখলের অভিযোগ উঠেছে। এ ঘটনায় ভুক্তভোগী রোকসানা বেগম সংবাদ সন্মেলন ও থানায় অভিযোগ দায়ের করেন।

বুধবার (২৭ সেপ্টেম্বর) মহিলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ও তার ছেলে ওমর ফারুক এর নামে নরসিংদী মডেল থানায় লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছেন ভুক্তভোগী রোকসানা বেগম।

অভিযোগ সূত্রে জানা যায়, জেলা মহিলা আওয়ামী লীগের নেত্রী ফাতেমা সরকার সুমিসহ বিবাদী নরসিংদী শহরের উত্তর নাগরিয়াকান্দি এলাকার মৃত মফিজ উদ্দিন সরকারের মেয়ে রোকসানা বেগমের জমি নিয়ে বিরোধ চলে আসছিল। ফাতেমা সরকার সুমি ও তার ছেলে ওমর ফারুক সরকার বিভিন্ন সময় জোরপূর্বক সাটির পাড়া মৌজাস্হিত উত্তর নাগরিয়াকান্দির আর.এস খতিয়াত-২৬০৩ দাগ নং-৪৮ এ ১.২৫ জায়গার জমি দখলের পাঁয়তারা করে আসছিল। গত ২৬ সেপ্টেম্বর (মঙ্গলবার) সকালে ফাতেমা সরকার সুমি ও তার ছেলের নেতৃত্বে অজ্ঞাত নামা আরোও কয়েকজন লোক নিয়ে ভুক্তভোগীর বাড়িতে ঢুকে জোরপূর্বক ঘরে তালা মারার চেষ্টা করে। এতে বাঁধা দেওয়ায় চেষ্টা করলে রোকসানাকে মারধর ও ঘর থেকে বের করে দেয়।

পরে ভুক্তভোগী রোকসানা বেগম ওইদিনই একসংবাদ সন্মেলনের মাধ্যমে সাংবাদিকদের উপস্থিতিতে লিখিত বক্তব্য বলেন, আমাদের মা মোসাঃ সায়েস্তা বেগম মারা যাবার আগে গত ২১/১২/২০১১ সালে আামদের তিন বোন রুশিয়া বেগম, সুরিয়া বেগম এবং আমাকে সহ তিন বোনকে ৪ শতাংশ জায়গা সাব-কবলা দলিল মূলে রেজিস্ট্রী করে দেন। যাহার দলিল নং-২৮১৩৫। তাং- ২১/১২/২০১১। আমার বাবা জীবিত থাকাকালীন আমার অন্য ভাইদেরকেও আলাদা করে জমি রেজিস্ট্রী করে দিয়ে গিয়েছিলেন। কিন্তু আমার মেঝো ভাইয়ের বউ ফাতেমা সরকার সুমির চোখ পড়ে আমার জমির উপর। তারা আমাদের কাছ থেকে জোরপূর্বক আধা শতাংশ জায়গা দখল করে নিতে চায়। আমরা বাঁধা দিলে ফাতেমা সরকার সুমি ও তার ছেলে আমাদের উপর প্রতিনিয়ত অত্যাচার ও নানাধরণের হুমকি দিয়ে আসছে। এতে আমরা আতংকে আছি এবং যেকোনো সময় আামাদের পরিবারের উপর হামলা করে প্রাণহানি ঘটাতে পারে। বর্তমানে তাদের অত্যাচারে আমরা আমাদের পরিবার পরিজন নিয়ে নিরাপত্তাহীনতায় ভুগছি। উপস্থিত প্রিন্ট মিডিয়া ও ইলেকট্রিক ও অনলাইন মিডিয়ার সাংবাদিকদের মাধ্যমে জেলা পুলিশ সুপারের নিকট আমাদের পরিবার পরিজনের নিরাপত্তা চাই। উক্ত সংবাদ সন্মেলন উপস্থিত ছিলেন রোকসানা বেগম দুই বোন রুশিয়া বেগম ও সুরিয়া বেগম।

এ বিষয়ে জানতে ফাতেমা সরকার সুমির মুঠোফোনে একাধিকবার ফোন দিলে তার মুঠোফোনটি বন্ধ পাওয়া যায়। পরে তার ছেলে ওমর ফারুক সরকার বলেন, এরকম কোন ঘটনা আমাদের দ্বারা ঘটেনি।

Please Share This Post in Your Social Media

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ সম্পর্কিত আরও খবর পড়ুন:

Jonogoner Khobor - জনগণের খবর পোর্টালের গুরুত্বপূর্ণ লিংকসমূহ:

 আমাদের পরিবার

About Us

Contact Us

Disclaimer

Privacy Policy

Terms and Conditions

Design & Developed by: Sheikh IT
sheikhit

জনগণের খবর পোর্টালের কোনো প্রকার নিউজ, ছবি কর্তৃপক্ষের অনুমতি ব্যতীত অন্য কোথাও ব্যবহার করা যাবে না। ধন্যবাদ।